চট্টগ্রাম   মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১  

শিরোনাম

জেলা যুবলীগকে কলঙ্কমুক্ত করতে চান সভাপতি প্রার্থী হাশেমী তপু

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি::    |    ০৫:৫০ পিএম, ২০২১-০৬-১০

জেলা যুবলীগকে কলঙ্কমুক্ত করতে চান সভাপতি প্রার্থী হাশেমী তপু

 

 মিনি পাকিস্তানখ্যাত সাতক্ষীরায় জঙ্গি, চাঁদাবাজ, মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত যুব রাজনীতি প্রতিষ্ঠা করতে মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী দল বাংলাদেশ আ’লীগের অত্যন্ত সুশৃঙ্খল সহযোগী সংগঠন যুবলীগকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের স্বচ্ছ এবং শক্তিশালী সংগঠনে গড়ে তোলার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে তৎকালীন অবিভক্ত বাংলার সাবেক ডেপুটি স্পীকার সৈয়দ জালালউদ্দীন হাসেমী এর পৌত্র, স্বাধীনতা পুরুষ্কার ও একুশে পদক প্রাপ্ত ৬০’র দশকের মুক্তিযুদ্ধে সাড়া জাগানো প্রখ্যাত কবি, সাংবাদিক ও নাট্যখার সিকানন্দার আবু জাফর, বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ট সহচর ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক (ভারপ্রাপ্ত) সভাপতি, ৪বারের জাতীয় সংসদের সদস্য সৈয়দ কামাল বখত সাকি ও একুশে পদক প্রাপ্ত গুণি চিত্রশিল্পী সৈয়দ জাহাঙ্গীর এর ভাইপো এবং  কলিকাতা বঙ্গবাসী কলেজের সাবেক জি এস সৈয়দ সালাহউদ্দীন আজাদ এর ছেলে জেলা যুবলীগের সভাপতি প্রার্থী হিসেবে নিজের নাম ঘোষণা করলেন যুবনেতা সৈয়দ মহিউদ্দীন হাসেমী তপু। 

তিনি জানান, বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা জাতির পিতা ‘বঙ্গবন্ধু’ শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ। মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক শেখ ফজলুল হক মনি যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান। যে কারণে যুবলীগের প্রতিটি কর্মী এক অনন্য গৌরবের উত্তরাধিকার বহন করে চলেন হৃদয়ের গভীরে। আমার চাচা সৈয়দ কামাল বখত্ সাকি ছাত্রজীবন থেকে বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ট সহচর হিসেবে আমৃত্যু বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতির দক্ষ সংগঠকের ভূমিকা পালন করেছিল। সেই সময়ে তারই অনুপ্রেরণায় অভিভূত হয়ে ৯০’র দশকের শুরুতে কলেজ ছাত্রলীগের একজন কর্মী হিসেবে সক্রিয় রাজনীতিতে আমার আত্মপ্রকাশ ঘটে ১৯৯৩ সালে। এরপরে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের ১৯৯৪-১৯৯৬ সালের কমিটির সক্রিয় সদস্য, আনুষ্ঠানিক ভাবে সাতক্ষীরা সদর উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ম-আহবায়ক হিসেবে ২০০৩ সালে দায়িত্ব গ্রহণ, একই সাল থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বভার কাঁধে নিয়ে প্রতিকুল পরিবেশের মধ্য দিয়ে দায়িত্ব পালন, ( উক্ত সময় জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের নেতৃত্বে ছিলেন কাজী আক্তার হোসেন ও আসাদুজ্জামান লিঠু।), ২০০৫ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত ছাত্রলীগ সদর উপজেলার সাধারণ সম্পাদকের দায়িত¦ পালনের পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্ট এর সহযোগিতায় পরিচালিত  ‘বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা’ সাতক্ষীরা জেলার প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করি। (তখন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের দায়িত্বে ছিলেন মিয়া মুনসফ ও শিরিন আক্তার মনজু), দেশে যখন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দমন পীড়নে সকল ধরনের প্রকাশ্য রাজনৈতিক কর্মকান্ড স্থবির তখন ও ‘বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা’ এর মাধ্যমে স্কুল কলেজ গুলিতে সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের মাধ্যমে লিফলেট, ফোল্ডার, ম্যাগাজিন ও পত্রিকা প্রকাশনার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নে  কাজ করেছি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ সাতক্ষীরা জেলা শাখার সাংষ্কৃতিক সম্পাদক হিসেবে ২০১০ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন, ২০১৫ সাল থেকে অদ্যাবধি বঙ্গবন্ধু পরিষদ সাতক্ষীরা জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে চলেছি। এছাড়াও ২০১৯-২০২০ সালে ৮০ ও ৯০ এর দশকের সাতক্ষীরা জেলার ত্যাগী ও পরীক্ষিত ছাত্র রাজনীতির ত্যাগী কর্মী ও নেতাদের সমন্বয়ে গড়ে তোলা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্রনেতা সমন্বয় কমিটি (৮০ ও ৯০ দশক) এর প্রতিষ্ঠাতা সংগঠক ০৫ জনের মধ্যে অন্যতম। এই প্লাটফর্মের মাধ্যমে আমরা জেলার বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে  থাকা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের বিগত দিনের দুঃসময়ের নেতাদের তুলে আনার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি এবং বিভিন্ন সেবা মূলক কাজের মাধ্যমে আমরা মানবতার সেবা প্রদান করে চলেছি। তারই একটি উল্লেখযোগ্য কাজ হলো আমরা করোনা কালীন সময়ে (জুন, জুলাই-২০২০ইং মাসে প্রতি জনকে ১০ কেজি করে ১০০০ জনের মধ্যে চাউল বিতরণ করেছি। এটা ছিল আমাদের সকলের সহোযোগিতার মাধ্যমে সম্মিলিত প্রয়াস)।, ১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়া সরকারের একদলীয় নির্বাচনের বিরুদ্ধে কলেজ থেকে জেলা সদরে ছাত্রলীগের আন্দোলনের সক্রিয় কর্মী হিসেবে কাজ করেছি, ২০০১ সালে চার দলীয় জোট জয়লাভের ফলে আওয়ামী পরিবারের সন্তান হওয়ার ফলে হামলা ও নির্যাতনের স্বীকার হয়েছিলাম। ২০১৪ সালের ০৫ জানুয়ারী ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বে ২০১২ ও ২০১৩ সালে সাতক্ষীরাতে জামাতের নারকীয় তান্ডবের হাত থেকে স্থানীয় সংখা লঘু পরিবারদের রক্ষা করতে অগ্রণী ভূমিকা পালনও করি। সেই ধারাবাহিকতায় যুবসমাজকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের ছায়াতলে ঐক্যবদ্ধ করে সাতক্ষীরার যুবলীগকে ধ্বংসস্তূপ থেকে ফিরিয়ে আনতে চাই এবং রাজপথের ত্যাগী ও তৃৃণমূলের কর্মীদের দিয়ে যুবলীগকে ঢেলে সাজাতে চাই।রাজনীতিতে স্বচ্ছ ও ক্লিন ইমেজের যুবনেতা সৈয়দ মহিউদ্দীন হাসেমী তপুর জেলাজুড়ে বেশ পরিচিত রয়েছে। সময়ের ব্যবধানে রাজনীতি, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে একটি পরিচিত মুখে পরিণত হয়েছেন তিনি। ইতিপূর্বে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের ভিক্তিতে রাজপথের আন্দোলন-সংগ্রামের পরীক্ষিত সৈনিক, ছন্দময়ী যুবনেতা সৈয়দ মহিউদ্দীন হাসেমী তপু। অত্যন্ত সদালাপী, বিনয়ী ও মিশুক এই তরুণ নেতার জনপ্রিয়তার অন্যতম কারণ হলো সকল ধর্মের মানুষের প্রতি সমান সহমর্মিতা ও সুন্দর আচরণ।
সৈয়দ মহিউদ্দীন হাসেমী তপু জানান, আমার ক্ষমতার কোন লালসা নেই। তবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া ও শেখ ফজলুল হক মণির প্রতিষ্ঠিত সংগঠন আওয়ামী যুবলীগকে আরও শক্তিশালী সংগঠনে রুপদানের মধ্যদিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে আমার চাচার হাত ধরে সংগ্রামে শামিল হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে জেলা যুবলীগের সভাপতি প্রার্থী হয়েছি। আমার এ স্বপ্ন পুরণে যুবলীগের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীকে আমার সাথী হিসেবে পেতে চাই। আমার লক্ষ্য থাকবে যুবলীগ কর্মী ভাইদের যাতে অর্থাভাবে ভুগতে না হয়,  কোন অসৎ কাজ না করতে হয়। সাধারণ মানুষ যেন রাজনীতিকে ঘৃণার চোখে না দেখে। আমার স্বপ্ন এখন একটাই জেলা যুবলীগকে সুসংগঠিত করা, এলাকার খেটে খাওয়া, গরীব-দুঃখী মানুষের মাঝে জীবনটা উৎস্বর্গ করে তাদের ভালবাসায় সিক্ত হয়ে বেঁচে থাকা। তিনি আরো জানান, মিনি পাকিস্তানখ্যাত সাতক্ষীরায় জঙ্গিবাদের ঘাঁটি। যারাই যুবলীগের দায়িত্বে আসে তারাই জঙ্গিবাদ নির্মূলের তেমন ভূমিকা না রেখে নিজেদেরকে নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। তাই আগামী দিনে সৎ, পরিচ্ছন্ন ও ত্যাগী, অসাম্প্রদায়িক, প্রগতিশীল মনার ব্যক্তি নেতৃত্বে আসলে তাদের মাধ্যমে সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে জঙ্গিবাদ প্রতিহত করে জেলায় যুবলীগের ঘাঁটিতে পরিণত করার পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ও জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন বাস্তবায়নের চেষ্টা করবো। এছাড়াও করা। সাতক্ষীরা জেলা যুবলীগের পূর্বের কমিটিতে ওই সংগঠনের সাথে যারা ছিল তাদের অধিকাংশই জেলার বিভিন্ন স্থানে জমি দখল, ঘের দখল, বাড়ি দখল, খুনখারাবি, চোরাচালান প্রভৃতি অনৈতিক কাজের সাথে জড়িতও ছিল। সেই জন্য সংগঠনটির অনেকে গ্রেফতার হয়ে কারাগারেও ছিল। এমনকি ইতিপূর্বে সংগঠন বিরোধী কার্যকলাপে জড়িত থাকার দায়ে জেলার আহবায়ককে বহিষ্কারও করেন কেন্দ্রীয় নেতারা। এরফলে জেলার সংগঠন থাকলেও নিষ্ক্রিয় থাকতে বাধ্য হয়েছেন জেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির অনেকে। সেজন্য জেলা যুবলীগকে কলংকমুক্ত করে এলাকার গণমানুষের স্বপ্ন পূরণে কাজ করাই তার একমাত্র লক্ষ্য। আমার সম্পর্কে তৃণমূলের অধিকাংশ কর্মীরা জানে ও চেনেন। সেই ধারাবাহিকতায় তৃণমূলের কর্মীদের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় নেতারা আমাকে মূল্যায়ন করবেন বলে প্রত্যাশা করি। সেজন্য সর্বস্তরের জনগণের পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু আর্দশের আওয়ামী পরিবারের সকলের সহযোগিতা ও দোয়া কামনা করছেন তিনি।  এ প্রসঙ্গে জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শেখ সাহিদ উদ্দিন জানান, সম্প্রতি জেলা ছাত্রলীগের আংশিক কমিটির অনুমোদনের পরে যুবলীগের প্রার্থী হতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও পত্র-পত্রিকায় যে কয়জনের নাম দেখল ংাম তার মধ্যে অধিকাংশই সদস্য হওয়ার যোগ্যতাও রাখে না। অথচ তারাও প্রার্থী। ওই প্রার্থীদের মধ্যে সৈয়দ মহিউদ্দীন হাসেমী তপু অন্যতম। কারণ বিখ্যাত রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান তিনি। ইতিপূর্বে তার কোনো বদনাম নেই। সে শিক্ষিত ও ভদ্র। সে সাতক্ষীরা সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক ছিল। তার চাচা সৈয়দ দিদার বখত সাবেক মন্ত্রী ছিলেন। এছাড়াও সাতক্ষীরার আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শেখ শরিফ আহমেদ তার ফুফা, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শেখ শাফি আহমেদ তার ফুফাতো ভাই ও জেলা আওয়ামীলীগের ১ নং যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ কামাল শুভ্র তার চাচাতো ভাই। তার মতো ছেলে যুবলীগে আসলে সংগঠনের বদনাম হবে না তা এককচিত্তে বলতে পারি। অপরদিকে জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী আক্তার হোসেন জানান, ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলাম যখন সৈয়দ মহিউদ্দীন হাসেমী তপু তখন সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিল। ছেলেটা খুবই অমায়িক ও ভদ্র। সে সামাজিক লোক। সেই সুবাদে জেলা শিল্পকলা একাডেমী, কবিতাকুঞ্জ, স্ব-কাল নাট্যগোষ্ঠী, জেলা সাংস্কৃতিক পরিষদ এর সদস্যের পাশাপাশি বিভিন্ন সংগঠনে সংগঠক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছে এবং কিছু কিছু সংগঠনে অদ্যাবধি দায়িত্বরত। তাকে কখনও সিগারেট ফুঁকতে দেখিনি। সাতক্ষীরার একটি কিন্ডার গার্ডেনে অধ্যক্ষ হিসেবে কর্মরত। কোভিড-১৯ এর শুরু থেকে নিজ উদ্যোগে গণসচেতনতা মূলক প্রচারণার পাশাপাশি ব্যক্তিগত উদ্যোগে মাস্ক ও প্রচারপত্র বিতরণ সহ দুইশত সুবর্ণ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রীর প্যাকেজ বিতরণও করেছিল। তার মতো ছেলে জেলা যুবলীগের সভাপতি হওয়ার যোগ্যতা রাখে।

রিটেলেড নিউজ

২৪ ঘণ্টায় ৮২ জনের মৃত্যু, সাত সপ্তাহে সর্বোচ্চ

২৪ ঘণ্টায় ৮২ জনের মৃত্যু, সাত সপ্তাহে সর্বোচ্চ

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে আরও ৮২ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের ম‌ধ্য...বিস্তারিত


মুজিববর্ষে দেশের সকল গৃহহীনকে ঘর করে দেওয়ার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত প্রধানমন্ত্রীর

মুজিববর্ষে দেশের সকল গৃহহীনকে ঘর করে দেওয়ার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত প্রধানমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভূমিহীন-গৃহহীনদের মাঝে ৫৩ হাজার ৩৪০টি ঘর বিনামূল্যে বিতরণকালে মুজিববর...বিস্তারিত


‘আল্লাহ মরণ রাইখলে এইহ্যানে মরুম’

‘আল্লাহ মরণ রাইখলে এইহ্যানে মরুম’

রাঙামাটি প্রতিনিধি : : রাঙ্গামাটিতে পাহাড়ধসে প্রাণহানি ঠেকাতে ২৩টি আশ্রয়কেন্দ্র খুলেছে প্রশাসন। তবে শত চেষ্টার পরও ঝু...বিস্তারিত


লাকসামে মডেল ফারিয়ার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

লাকসামে মডেল ফারিয়ার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

লাকসাম প্রতিনিধি :: : ‘‘ অধিকার আদায়ে আমরা সবাই একসাথে ’’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে কুমিল্লার লাকসামে শনিবার (১৯ জ...বিস্তারিত


কক্সবাজারে পুলিশের অভিযানে এস.এ পরিবহন থেকে ৯ হাজার ৬শ ইয়াবাসহ  ইয়াবা ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

কক্সবাজারে পুলিশের অভিযানে এস.এ পরিবহন থেকে ৯ হাজার ৬শ ইয়াবাসহ  ইয়াবা ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

সংবাদদাতা কক্সবাজার :: : কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশ এক অভিযান চালিয়ে এস.এ পরিবহন কক্সবাজার শাখা থেকে ৯ হাজার ৬শ পিস ইয়াব...বিস্তারিত


কক্সবাজারের পেকুয়ায় দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে বৃদ্ধ নিহত, আহত ১২

কক্সবাজারের পেকুয়ায় দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে বৃদ্ধ নিহত, আহত ১২

সংবাদদাতা কক্সবাজার :: : কক্সবাজারের পেকুয়ায় সানলাইন পরিবহনের দুই বাসের সংঘর্ষে ছাবের আহমেদ (৬০) নামের এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছে...বিস্তারিত



সর্বপঠিত খবর

পার্বত্য ভিক্ষসংঘু ও পার্বত্য ত্রাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ 

পার্বত্য ভিক্ষসংঘু ও পার্বত্য ত্রাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ 

বিহারী চাকমা, রাঙামাটি : :   রাঙ্গামাটির লংগদু কলেজে পার্বত্য ভিক্ষুসংঘ ও পার্বত্য ত্রাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দরিদ্র ও ম...বিস্তারিত


নবাব সিরাজউদ্দৌলার জন্ম উৎসবে বাংলার তিন গুণী সন্তান পেলেন সম্মাননা স্মারক

নবাব সিরাজউদ্দৌলার জন্ম উৎসবে বাংলার তিন গুণী সন্তান পেলেন সম্মাননা স্মারক

আমাদের বাংলা ডেস্ক : :                                                    - মুহাম্মদ শাহ্‌ আলম       ...বিস্তারিত



সর্বশেষ খবর