চট্টগ্রাম   বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২  

শিরোনাম

শীত পড়তেই পরিযায়ী পাখি দেখতে বিদেশিদের ভিড়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :    |    ০১:১৭ পিএম, ২০২১-১১-২৯

শীত পড়তেই পরিযায়ী পাখি দেখতে বিদেশিদের ভিড়

শীত পড়তেই কেউ এসেছেন শ্রীলঙ্কা, মিয়ানমার কেউবা বাংলাদেশসহ ভারতবর্ষের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে। মালদার আদিনা ফরেস্ট এখন পরিযায়ী পাখিদের ভিড়। প্রতি বছরের নভেম্বর-ডিসেম্বর মাসে পাখিরা পার্কটিতে আসে। পাঁচ থেকে ছয় মাস থেকে তারা আবার নিজ নিজ দেশে ফিরে যায়। বন অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, নভেম্বর-ডিসেম্বর থেকে জানুয়ারি মাসে এই পার্কে উপচেপড়ে ভিড়। এই পার্কের মূল আকর্ষণটিই হলো পরিযায়ী পাখি। পরিযায়ী পাখিরা আদিনাই এসে বংশবিস্তার করে। গত মাসে আদিনা ফরেস্ট পাখি শুমারি করেছে বন অধিদপ্তর। এবারে ঝাঁকে ঝাঁকে এসেছে পরিযায়ী পাখি। এবারে আদিনাই পাখি শুমারিতে পরিযায়ী পাখির সংখ্যা ২৩ হাজার ১৭৫। যেভাবে যাবেন আদিনা ডিয়ার ফরেস্ট পার্কে টিকিট কাটার পর ফরেস্টে প্রবেশ করার কিছুক্ষণ পরেই আপনার বাঁ হাতে পড়বে একটি বিশাল পুকুর। পুকুরটির নাম পরানপুকুর। বছরের শেষের দিকে এই পুকুরে বিচরণ করে বিভিন্ন পরিযায়ী পাখি। যার কয়েকটির বিজ্ঞানসম্মত নাম প্রিন্সিয়া, ওরিয়ল ইত্যাদি। মূল গন্তব্যস্থলে পৌঁছালে সবার আগে আপনাদের চোখে পড়বে বিশাল একটি পাখির খাঁচা, যেটি দর্শনার্থীদের আকর্ষণের জন্য বানানো হয়েছে। যেই খাঁচায় রয়েছে অস্ট্রেলিয়ান কাকাতুয়া, ককাটেল, চাইনিজ গোল্ডেন ফিজিন্ট ও চাইনিজ সিলভার ফেজেন্ট। এই পাখির খাঁচা পার করলেই পড়বে বাচ্চাদের খেলার জন্য বানানো পার্কটি। আপনি যদি শিতের সময় এই পার্কে যান তবে এই সময় আদিনা ডিয়ার ফরেস্টের উচুঁ উচুঁ গাছের শাখায় পরিযায়ী পাখি এশিয়ান ওপেনবিল বা শামুখখোল পাখিদের দেখতে পাবেন। যারা নিজ নিজ বাসায় বিচরণ করছে। এছাড়া আদিনা ডিয়ার পার্কে যাওয়ার সময় তার পাশে অবস্থিত প্রত্নতান্ত্রিক নিদর্শন ‘হামাম খানা’ টি দেখতে ভুলবেন না। এই হামাম খানাটিকে স্থানীয় লোকেরা ‘লুকোচুরি’ ঘর বলে থাকেন। যেটি ঠিক পিকনিক স্পটের ডান দিকেই রয়েছে। আদিনা ফরেস্ট পশ্চিমবঙ্গের মালদা জেলার গাজোল থানার অন্তর্গত, পরিবেশ বান্ধব ও ক্ষুদ্ৰ আকারে চিতল হরিণ সংরক্ষণ ও প্রজননের জন্য একটি পার্ক, যেটি ১৯৮২ সালে তৈরি হয়েছিল। কেন্দ্রীয় সরকারে চিড়িয়াখানা অধিদপ্তর এটিকে ছোট চিড়িয়াখানা হিসাবে আখ্যা দিয়েছে। মালদা থেকে প্রায় ২১ কিমি পূর্বে আর গাজোল থেকে প্রায় ৭ কিমি পশ্চিমে আদিনা স্টপেজ। সেখান থেকে দক্ষিণে প্রায় ১ কিমি দূরে রয়েছে। এই পার্কে যে শুধু হরিণই রয়েছে এমনটি নই, তার পাশাপাশি রয়েছে নিল গাই, বিভিন্ন পরিযায়ী পাখি, বিভিন্ন প্রজাতির গাছ, শিশুদের জন্য খেলার পার্ক, দুটি পুকুর। এছাড়া ১০০ হেক্টর জমির ওপর দাঁড়িয়ে রয়েছে পার্কটি।


 

রিটেলেড নিউজ

ইন্দোনেশিয়ায় ৭.৩ মাত্রার ভূমিকম্প

ইন্দোনেশিয়ায় ৭.৩ মাত্রার ভূমিকম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : : ইন্দোনেশিয়ার পূর্বাঞ্চলের মালাকু প্রদেশের বরত দায়া দ্বীপপুঞ্জতে শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনে...বিস্তারিত


সংসদে এমপিদের হাতাহাতি

সংসদে এমপিদের হাতাহাতি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : : মধ্যপ্রাচ্যের দেশ জর্ডানে সংসদ অধিবেশন চলাকালীন বাদানুবাদের এক পর্যায়ে সংসদ সদস্যদের (এমপি) মধ্য...বিস্তারিত


সংকট কাটেনি, খাদ্যের সন্ধানে রাস্তায় কাবুলের শিশুরা

সংকট কাটেনি, খাদ্যের সন্ধানে রাস্তায় কাবুলের শিশুরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : : কেউ জুতা সেলাই করছে, কেউবা ময়লা আবর্জনার স্তূপ থেকে ভালো কিছু খুঁজে বের করে বিক্রি করছে খোলা বাজার...বিস্তারিত


ফ্রান্সে কঠোর বিধিনিষেধ ঘোষণা

ফ্রান্সে কঠোর বিধিনিষেধ ঘোষণা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : : করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রণের কারণে বিভিন্ন দেশেই নতুন করে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে। এরই মধ...বিস্তারিত


কলকাতার মেয়র হিসেবে আজ শপথ নেবেন ফিরহাদ

কলকাতার মেয়র হিসেবে আজ শপথ নেবেন ফিরহাদ

কলকাতা প্রতিনিধি : : ৩৯তম মেয়র হিসেবে শপথ নিতে চলেছেন ফিরহাদ হাকিম কলকাতার ৩৯তম মেয়র হিসেবে শপথ নিতে যাচ্ছেন ফিরহাদ হা...বিস্তারিত


  মাদার তেরেসার দাতব্য সংস্থায় বিদেশি অর্থায়ন বন্ধ করেছে ভারত

মাদার তেরেসার দাতব্য সংস্থায় বিদেশি অর্থায়ন বন্ধ করেছে ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : : মাদার তেরেসার প্রতিষ্ঠিত দাতব্য সংস্থায় বিদেশি অনুদান পাওয়ার লাইসেন্স স্থগিত করে দিয়েছে ভারত ...বিস্তারিত



সর্বপঠিত খবর

“ হিন্দুরা বাংলার দেশপ্রেমি নবাব সিরাজউদ্দৌলাকে আখ্যায়িত করে অশুর আর বাংলার দুশমন ক্লাইভকে আখ্যায়িত করে মা দূর্গা! ”

“ হিন্দুরা বাংলার দেশপ্রেমি নবাব সিরাজউদ্দৌলাকে আখ্যায়িত করে অশুর আর বাংলার দুশমন ক্লাইভকে আখ্যায়িত করে মা দূর্গা! ”

নবাবজাদা আলি আব্বাসউদ্দৌলা :- :   নবাবজাদা আলি আব্বাসউদ্দৌলা :- পলাশী একটি বিশ্বাসঘাতকতার ইতিহাস। এই ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছিল...বিস্তারিত


পার্বত্য ভিক্ষসংঘু ও পার্বত্য ত্রাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ 

পার্বত্য ভিক্ষসংঘু ও পার্বত্য ত্রাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ 

বিহারী চাকমা, রাঙামাটি : :   রাঙ্গামাটির লংগদু কলেজে পার্বত্য ভিক্ষুসংঘ ও পার্বত্য ত্রাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দরিদ্র ও ম...বিস্তারিত



সর্বশেষ খবর