চট্টগ্রাম   রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১  

শিরোনাম

আন্তর্জাতিক বাজারের চেয়ে খুলনাঞ্চলের স্থানীয় বাজারে চিংড়ির দাম বেশি

হিমায়িত কোম্পানিগুলো নগদ টাকায় কিনছে না

মো. আনিসুজ্জামান, খুলনা :    |    ০৫:১২ পিএম, ২০২১-০৫-০৫

আন্তর্জাতিক বাজারের চেয়ে খুলনাঞ্চলের স্থানীয় বাজারে চিংড়ির দাম বেশি

করোনা, আম্পান ও দাবদাহের মতো দূর্যোগ উপেক্ষা করে খুলনার নতুনবাজারে ডিপোগুলোতে এ মওসুমের প্রথম চিংড়ি আসতে শুরু করেছে। ডিপো মালিকরা আশংকা করছেন আন্তর্জাতিক বাজারের চেয়ে স্থানীয় বাজারে চিংড়ির দাম বেশি। এছাড়া হিমায়িত কোম্পানিগুলো নগদ টাকায় চিংড়ি কিনছে না। গেলো বারের তুলনায় এবারে চিংড়ির দাম বেশি। রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো সূত্র জানায়, খুলনাঞ্চল থেকে গত মওসুমের শেষ দু’মাসের মধ্যে ডিসেম্বরে তিন লাখ ৫৭ হাজার ১ শ’ ৬৭ ডলার এবং ৬ লাখ ৬৫ হাজার ইউরো এবং এ বছরের জানুয়ারি মাসে ১০ লাখ ৬৬ হাজার মূল্যের হিমায়িত চিংড়ি বিদেশে রফতানি হয়। যেসব দেশে চিংড়ি রফতানি হচ্ছে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে বেলজিয়াম, নেদারল্যান্ড, পতুর্গাল, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, রাশিয়া, জামার্নি,ইটালি, ডেনমার্ক, রোমানিয়া, জাপান প্রভৃতি।
গত বছরের ২০ মে দক্ষিণাঞ্চলের ওপর দিয়ে আম্পান নামক ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যোগ বয়ে যায়, ঘেরের চিংড়ি ভেসে যায়। কয়রা, মোংলা, শ্যামনগর ও আশাশুনির শ’-শ’ চিংড়ি চাষি ক্ষতিগ্রস্থ হয়। এছাড়া করোনার কারণে ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলোতে চিংড়ি আমদানি বন্ধ রয়েছে। ঘেরে স্বল্প সময়ের মধ্যে বাগদা চিংড়ি রফতানিযোগ্য হয়েছে। ফলে এপিল থেকেই অমাবশ্যা ও পূর্ণিমার গোনে বাগদা নতুনবাজার ডিপোতে আসছে। ব্যবসায়ীদের সুত্র বলেছে, আট পিসে এক পাউন্ড সাইজের বাগদা ৮শ’ টাকা, ১৮ পিসে এক পাউন্ড ৬শ’ এবং ২৪ টি তে এক পাউন্ড সাইজ ৫শ’ টাকা দরে বিকিকিনি হচ্ছে। গত মওসুমে ছিল যথাক্রমে ৭শ’, ৫শ’ ৫০ ও ৪শ’৫০ টাকা। গত মওসুমের চেয়ে প্রতি কেজিতে বেড়েছে ৫০ টাকা। ডুমুরিয়ার খর্ণিয়ার চিংড়ি চাষী মো. মিন্টু বলেন, মওসুমের শুরুতেই পোনার সংকট ছিল। অধিক মূল্য দিয়ে নদী থেকে উৎপাদিত পোনা ঘেরে ছাড়তে হয়। তাতে উৎপাদন খরচ বাড়ে। নতুনবাজার ডিপোতে চিংড়ি এনে নগদ অর্থ পাওয়া যাচ্ছে না। রূপসা বাজারের মাছের আড়ত আকন ফিসের প্রোপাইটার আব্দুল মজিদ বলেন, মওসুম শুরু হলেও ঘের থেকে যে পরিমাণ মাছ আসার কথা ছিল সে পরিমাণ আসছে না। তাই স্বাভাবিক ভাবেই মাছের একটু দাম বেশি। তবে বৃষ্টি শুরু হলে পরিবেশ স্বাভাবিক এবং উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে বলে তিনি আশাবাদী।

রিটেলেড নিউজ

ধর্মীয় অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে পালিত হল সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান কিশোর কুমার রায়ের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী

ধর্মীয় অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে পালিত হল সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান কিশোর কুমার রায়ের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী

সংবাদদাতা, দিনাজপুর : :    দিনাজপুর উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান, জেলা জন্মাষ্ঠমী উদযাপন কমিটির সাবেক সভাপতি ও মোহনী...বিস্তারিত


শুধু সাংস্কৃতিক কর্মী নয় প্রতিটি সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানে করোনাকালীন প্রনোদনা দিতে হবে : মানববন্ধনে বক্তারা

শুধু সাংস্কৃতিক কর্মী নয় প্রতিটি সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানে করোনাকালীন প্রনোদনা দিতে হবে : মানববন্ধনে বক্তারা

সংবাদদাতা, দিনাজপুর : :   গত শুক্রবার বিকেলে দিনাজপুর প্রেসক্লাব সম্মুখ সড়কে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট দিনাজপুর এর আয়োজ...বিস্তারিত


প্রতিবন্ধী স্ব-সংগঠনের সদস্যদের নিয়ে নাগরিক সংলাপ অনুষ্ঠিত

প্রতিবন্ধী স্ব-সংগঠনের সদস্যদের নিয়ে নাগরিক সংলাপ অনুষ্ঠিত

সংবাদদাতা, দিনাজপুর : :   ১৮ সেপ্টেম্বর শনিবার দিনাজপুর সদর উপজেলায় ৯নং আস্করপুর ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে সেন্টার ফর ডিজএ...বিস্তারিত


সিরাজগঞ্জে স্বামীর ছুরিকাঘাতে স্ত্রীর মৃত্যু

সিরাজগঞ্জে স্বামীর ছুরিকাঘাতে স্ত্রীর মৃত্যু

সংকাদদাতা, সিরাজগঞ্জ: : সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার চর মালশাপাড়া মহল্লায় স্বামীর ছুরিকাঘাতে রিমা খাতুন (২০) নামে এক গৃহবধুর মৃ...বিস্তারিত


চৌহালীতে এখনো দূর্ভোগ কমেনি

চৌহালীতে এখনো দূর্ভোগ কমেনি

চৌহালী (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি: : বন্যার পানি কমতে শুরু করলেও যমুনা নদী ভাঙ্গনে এবং ঘরবাড়ি, ভিটে-মাটি, জমি-জমা ভেঙ্গে যাওয়া পরিবার গু...বিস্তারিত


কিশোরগেঞ্জ সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুল শিক্ষক নিহত

কিশোরগেঞ্জ সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুল শিক্ষক নিহত

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি : : কিশোরগঞ্জের হোসেনপুরে মর্মান্তিক এক সড়ক দুর্ঘটনায় মো. ফজলুর রহমান ওরফে বাচ্চু মিয়া (৪৫) নামে সরকার...বিস্তারিত



সর্বপঠিত খবর

পার্বত্য ভিক্ষসংঘু ও পার্বত্য ত্রাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ 

পার্বত্য ভিক্ষসংঘু ও পার্বত্য ত্রাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ 

বিহারী চাকমা, রাঙামাটি : :   রাঙ্গামাটির লংগদু কলেজে পার্বত্য ভিক্ষুসংঘ ও পার্বত্য ত্রাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দরিদ্র ও ম...বিস্তারিত


“ হিন্দুরা বাংলার দেশপ্রেমি নবাব সিরাজউদ্দৌলাকে আখ্যায়িত করে অশুর আর বাংলার দুশমন ক্লাইভকে আখ্যায়িত করে মা দূর্গা! ”

“ হিন্দুরা বাংলার দেশপ্রেমি নবাব সিরাজউদ্দৌলাকে আখ্যায়িত করে অশুর আর বাংলার দুশমন ক্লাইভকে আখ্যায়িত করে মা দূর্গা! ”

নবাবজাদা আলি আব্বাসউদ্দৌলা :- :   নবাবজাদা আলি আব্বাসউদ্দৌলা :- পলাশী একটি বিশ্বাসঘাতকতার ইতিহাস। এই ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছিল...বিস্তারিত



সর্বশেষ খবর