চট্টগ্রাম   রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১  

শিরোনাম

বেগম রোকিয়া হলেন স্বনির্ভর মহিলাদের আশ্রয়স্থল ঃ ইমাদ উদ্দিন বুলবুল

বোদ্ধা সমাবেশে তৈমুর রাজা চৌধুরীকে  বরাক এডুকেশন সোসাইটির সম্মাননা  প্রদান 

মিলন লস্কর, শিলচর (ভারত) :    |    ০১:৫৬ পিএম, ২০২১-১০-০৪

বেগম রোকিয়া হলেন স্বনির্ভর মহিলাদের আশ্রয়স্থল ঃ ইমাদ উদ্দিন বুলবুল

বরাক এডুকেশন সোসাইটির চতুর্থ বেগম রোকেয়া স্মারক সম্মাননা পেলেন দৈনিক সাময়িক প্রসঙ্গ পত্রিকা  সম্পাদক তথা বরাক উপত্যকা বঙ্গ সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্মেলনের কাছাড় জেলা সভাপতি এবং  বিশিষ্ট সংগঠক ও সমাজসেবী তৈমুর রাজা চৌধুরী। রবিবার শিলচরের ইলোরা হেরিটেজ হলে সোসাইটির সভাপতি ডঃ আলা উদ্দিন মন্ডলের পৌরোহিত্যে  এক বোদ্ধা সমাবেশের মাধ্যমে চৌধুরীর হাতে এই সম্মাননা তুলে দেওয়া হয়। 
সম্মাননা গ্রহণ করে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তৈমুর রাজা চৌধুরী বলেন,বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত শুধু মুসলিম সমাজ নয়, সমগ্র দেশের সমাজের কাছে অনুসরণীয় নারী। তাঁর জীবনের যাবতীয় কর্মকাণ্ড ছিল স্ত্রীশিক্ষার । কিন্তু রোকেয়ার  স্বপ্ন এখনও পূর্ণ হয়নি। কারণ এখনও আমাদের এই অন্চলের মুসলিম সমাজে স্ত্রী শিক্ষার গ্রাফ অনেক নিচে। চৌধুরী বলেন, রোকেয়ার  স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করতে হলে  মুসলিম সমাজের মেয়েদের আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত করে তুলতে হবে। একজন  পুরুষ শিক্ষিত হলে তিনি নিজে শিক্ষিত হন কিন্তু একটি  মেয়ে শিক্ষিত হলে পরিবার ও সমাজ শিক্ষার আলোকে আলোকিত হয়। প্রসঙ্গক্রমে তৈমুর রাজা  উল্লেখ করেন,স্ত্রী শিক্ষার প্রসারে  শিলচর শহরের মানুষ সূচনালগ্ন থেকে সচেষ্ট  ছিলেন। বেগম রোকেয়ার জন্ম ১৮৮০ সালে। এর দুবছর পর প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল শিলচর স্টেশন কমিটি। ১৮৮২ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি কমিটির  প্রথম  সভা হয়।সভায় এক বছরের  বাজেট ধার্য হয়েছিল ১৩৪৪ টাকা। এর মধ্যে মেয়েদের স্কুল বাবদ বরাদ্দ ছিল ৬০ টাকা ও স্কুল গৃহ নির্মাণের জন্য ৪২ টাকা। এ থেকেই বোঝা যায়  মেয়েদের শিক্ষার ব্যাপারে শিলচর শহর সূচনা পর্ব থেকেই সচেষ্ট ছিল। চৌধুরি আক্ষেপ করে বলেন,এই  অন্চলের হিন্দু মেয়েরা শিক্ষার ক্ষেত্রে এগিয়ে গেলেও মুসলিম সমাজের রক্ষণশীলতার দরুণ মেয়েরা এখনও পেছনে রয়েছে। তবে হাল আমলে মুসলিম মেয়েরা আধুনিক শিক্ষায় আগ্রহী হয়ে উঠছে। এটাএকটা  শুভ লক্ষণ বলে তিনি মন্তব্য করেন। এর আগে রোকেয়া সম্মানপ্রাপ্ত তৈমুর রাজা চৌধুরীর উদ্দেশ্যে মানপত্র পাঠ করেন রুহুল আমিন, সুদৃশ্য সম্মানা স্মারক ও উপহার সামগ্রী তুলে দেন সোসাইটির সভাপতি ডঃ আলা উদ্দিন মন্ডল ও অধ্যাপক সাহিনারা বেগম। 
অনুষ্ঠানে  নারীর ক্ষমতায়নে  বেগম রোকেয়ার অবদান শীর্ষক  স্মারক বক্তব্য প্রদান করেন  বরাক উপত্যকায় রোকেয়া চর্চার পথিকৃৎ লেখক -আইনজীবি ইমাদ উদ্দিন বুলবুল। বুলবুল বেগম রোকেয়ার জীবনের বিভিন্ন দিক আলোকপাত করতে গিয়ে বলেন,বাংলা সাহিত্যে যেমন কল্লোল যুগ নামে একটি যুগ চিহ্নিত করা আছে,তেমনি সওগাত যুগ বলেও একটি যুগ আছে। সওগাত যুগের সাময়িকীতে বেগম রোকেয়ার রচনা নিয়ে আলোচনা ও মূল্যায়ন হত। বেগম রোকেয়ার প্রথম জবনীকার হলেন সামসুন নাহার মাহমুদ। বুলবুলও  কিছুটা আক্ষেপের সুরে বলেন, বেগম রোকেয়া নিয়ে চর্চা করতে গিয়ে  তাঁর  মনে একটা প্রশ্ন জাগ্রত হয়েছে ১৯১০ খ্রিস্টাব্দ থেকে ১৯৩২ পর্যন্ত বেগম রোকেয়া কলকাতার স্থায়ী বাসিন্দা ছিলেন আর বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরও সেই কলকাতার বাসিন্দা হলেও  তাদের কখনও সাক্ষাৎ হল না - এ এক আশ্চর্য। বুলবুল দেশভাগ প্রসঙ্গে  বলেন,দেশভাগের ফলে বেগম রোকেয়ার সোদপুরের কবরখানা ঢাকা নিয়ে যাওয়া হয়নি কিন্তু মহিলাদের মধ্যে শিক্ষা বিস্তারের মধ্য দিয়ে তিনি যে উত্তরাধিকার সৃষ্টি করেছিলেন তারা প্রায় সবাই পূর্ব পাকিস্তানে( বর্তমান বংলাদেশ) চলে যান ।  আমাদের দেশে তার কথা বলার জন্য আর সেভাবে কেউ থাকলো না। আমরা দেখতে পাই ১৯৮০ সালে রোকেয়ার জন্ম শতবার্ষিকীতে তখন সমগ্র  পশ্চিমবঙ্গে তাঁর সম্পর্কে শুধুমাত্র একটি চিঠি লেখেন গৌরি আয়ুব। আর তা প্রকাশিত হয় আনন্দ বাজার পত্রিকায়। প্রসঙ্গক্রমে বুলবুল বলেন,১৯৯৮ সালে বরাক উপত্যকায় বেগম রোকেয়া আলোচনা পরিষদ গঠন করা হয়েছিল তখন ইস্তাহারে  আমরা স্পষ্ট লিখেছিলাম " বাংলার নারী জাগরণের অগ্রদূত বেগম রোকেয়া সখাওয়াত। " আমরা কোনদিন মুসলিম নারী জাগরণের অগ্রদূত বলে তাঁকে  ঐতিহাসিকভাবে খন্ডিত এবং অপমানিত করিনি। কারণ তিনি মহিলাদের অধিকারের জন্য লড়াই করেছিলেন।রোকেয়া  হলেন স্বনির্ভর মহিলাদের আশ্রয়স্থল।  শিলচরে রোকিয়া চর্চার ফসল  এই উপত্যকার তিন  শিক্ষাবিদ যথাক্রমে ডঃ তনুশ্রী ঘোষ, ডঃ সীমা ঘোষ ও  ডঃ  মমতাজ বেগম বড়ভুইয়া তার উপর গবেষণা করে গ্রন্থ লিখেন। ভাষা আন্দোলনে মহিলাদের ভূমিকা নিয়ে গবেষণা করে পি এইচ ডি ডিগ্রি লাভ করেছেন আনোয়ারা বেগম মজুমদার। এছাড়াও   শিলচর বঙ্গভবনে বারোজন বাঙালি মনীষির মধ্যে একমাত্র মহিলা বেগম রোকেয়ার ছবি রাখার জন্য তৈমুর রাজা চৌধুরী ও বঙ্গ সাহিত্য সম্মেলনের কর্মকর্তাদের সাধুবাদ জানান বুলবুল। 
অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আসাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের অধ্যাপক সাহিনার বেগম ও অধ্যাপক দিব্যেন্দু দাস। অধ্যাপক সাহিনারা নতুন প্রজন্মের মেয়েদের কর্মমুখী শিক্ষার বিকাশের দিক আলোকপাত করে বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, স্ত্রী শিক্ষার উন্নতি ছাড়া একটি শক্তিশালী রাস্ট্র হতে পারে না। বরাক এডুকেশন সোসাইটি শুধু মুসলিম মহিলার শিক্ষা ও স্বাধীনতা নিয়ে কাজ করছে না, সমগ্র সমাজের নারীর  উন্নয়ন নিয়ে কাজকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। অধ্যাপক দিব্যজ্যোতি দাসও বেগম রোকেয়ার জীবনের বিভিন্ন দিক আলোকপাত করেন। তিনি প্রসঙ্গত  বরাক এডুকেশন সোসাইটির প্রাণ পুরুষ ডক্টর আবুল হোসেন চৌধুরীকে প্রচার বিমুখ ধর্মনিরপেক্ষ ব্যক্তি আখ্যায়িত করে বলেন, আসাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম একটি খুটিও আবুল হোসেন । সভাপতির ভাষনে ডক্টর আলা উদ্দিন মন্ডল তার বক্তব্যে শিক্ষার উপর আলোকপাত করে বলেন,পবিত্র কোরানের প্রথ্ম শব্দ হল ইকরা অর্থাৎ পড়। পড় এবং জ্ঞান অর্জন কর । প্রত্যেক মানবজাতির জন্য পড়া অপরিহার্য। কেন পড়তে হবে নিজেকে আত্ম আবিষ্কারের জন্য। আর শিক্ষা অর্থাৎ প্রজ্ঞা লাভ করলে মানুষ  সত্য জানতে পারবে বলে মন্তব্য করেন মন্ডল । তিনি আরও বলেন,যে সমাজের  নারী শিক্ষিত হয় সে সমাজ আলোকিত হয়। তাই   বরাক এডুকেশন সোসাইটির রজত জয়ন্তী বর্ষে শিক্ষার উন্নয়ন ও বিকাশে গুচ্ছ কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। 
এদিন সোসাইটির রোকেয়া স্মারক সম্মান অনুষ্ঠানে স্বস্ব ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য অবদানের জন্য   কয়েকজন বিশিষ্ট ব্যক্তিকেও সংবর্ধিক করা হয়। এরা  হলেন,অবসরপ্রাপ্ত ক্রীড়া আধিকারিক ও ক্রীড়াবিদ বদর উদ্দিন মজুমদার, দিদারুল ইসলাম তালুকদার, রাগিব হোসেন চৌধুরী। এদের হাতে সম্মাননা স্মারক ও উপহার তুলে দেন যথাক্রমে অধ্যাপক সাহিনারা বেগম,অধ্যাপক দিব্যেন্দু দাস, তৈমুর রাজা চৌধুরী  ও  ইমাদ উদ্দিন বুলবুল। এছাড়াও শিক্ষাবিদ মকব্বীর আলি বড়ভুইয়া, হিউম্যানিটি ফাউন্ডেশনের সভাপতি শিহাবুদ্দিন আহমদ ও এইচ এস ইউ এল এডুকেশনাল ফাউন্ডেশনের সচিব মিলন উদ্দিন লস্করকে সোসাইটি শুভেচ্ছা স্মারক দিয়ে সম্মান জানায়। সমগ্র অনুষ্ঠান সন্চালনা করেন আসাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পারফর্মিং আর্টের প্রভাষক  পিন্টু সাহা। সূচনা সঙ্গীত পরিবেশন করেন পিয়ালি পাল। বরাক এডুকেশন সোসাইটির এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিভিন্ন মহলের অভিমত সাম্প্রতিক কালে শিলচরে এ ধরনের বোদ্ধা গাম্ভীর্যপূর্ণ সমাবেশ নজরে পড়েনি। 

রিটেলেড নিউজ

মায়ের রক্তে ভাসছে ঘর, ছেলেকে খুঁজছে পুলিশ!

মায়ের রক্তে ভাসছে ঘর, ছেলেকে খুঁজছে পুলিশ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : :   স্বপ্না চন্দ। পেশায় নার্স। তার স্বামী পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে অন্য নারীর সঙ্গে থাকেন। তাই শাশু...বিস্তারিত


মৃত্যুর পরে এমপি হলেন আনসাম

মৃত্যুর পরে এমপি হলেন আনসাম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : :   ইরাকের খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের নেত্রী আনসাম ম্যানুয়েল ইস্কান্দার ২৪ আগস্ট মহামারি করোনায় আক্...বিস্তারিত


 প্রকাশ্য শাস্তিতে তালেবানের ‘না’

প্রকাশ্য শাস্তিতে তালেবানের ‘না’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : :   আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: প্রকাশ্য শাস্তিতে তালেবানের ‘না’ মরদেহ ক্রেনে ঝুলিয়ে ২৫ সেপ্টেম্বর শ...বিস্তারিত


সৌদির বিমানবন্দরে ড্রোন হামলা, তিন বাংলাদেশিসহ আহত ১০

সৌদির বিমানবন্দরে ড্রোন হামলা, তিন বাংলাদেশিসহ আহত ১০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : :   সৌদি আরবের জাজান শহরের বাদশাহ আবদুল্লাহ বিমানবন্দরে ড্রোন হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে তিন বাংলাদ...বিস্তারিত


সৌদিআরবে স্বর্ণ উৎপাদনের পরিমাণ বাড়ছে 

সৌদিআরবে স্বর্ণ উৎপাদনের পরিমাণ বাড়ছে 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : :   সৌদি আরবের স্বর্ণ খনিতে প্রচুর স্বর্ণ রিজার্ভ রয়েছে যার মূল্য প্রায় ১.৩ ট্রিলিয়ন ডলারে পৌঁছ...বিস্তারিত


সৌদিআরবে প্রবাসীরা অন্যত্র কাজ করলে জেল এবং নিজ দেশে ফেরতের ঘোষণা 

সৌদিআরবে প্রবাসীরা অন্যত্র কাজ করলে জেল এবং নিজ দেশে ফেরতের ঘোষণা 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : :     সৌদি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে সৌদি নিয়োগকর্তা ব্যক্তিগত সুবিধার জন্য বা অর্থের বিনিময়ে তার ক...বিস্তারিত



সর্বপঠিত খবর

পার্বত্য ভিক্ষসংঘু ও পার্বত্য ত্রাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ 

পার্বত্য ভিক্ষসংঘু ও পার্বত্য ত্রাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ 

বিহারী চাকমা, রাঙামাটি : :   রাঙ্গামাটির লংগদু কলেজে পার্বত্য ভিক্ষুসংঘ ও পার্বত্য ত্রাণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে দরিদ্র ও ম...বিস্তারিত


“ হিন্দুরা বাংলার দেশপ্রেমি নবাব সিরাজউদ্দৌলাকে আখ্যায়িত করে অশুর আর বাংলার দুশমন ক্লাইভকে আখ্যায়িত করে মা দূর্গা! ”

“ হিন্দুরা বাংলার দেশপ্রেমি নবাব সিরাজউদ্দৌলাকে আখ্যায়িত করে অশুর আর বাংলার দুশমন ক্লাইভকে আখ্যায়িত করে মা দূর্গা! ”

নবাবজাদা আলি আব্বাসউদ্দৌলা :- :   নবাবজাদা আলি আব্বাসউদ্দৌলা :- পলাশী একটি বিশ্বাসঘাতকতার ইতিহাস। এই ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছিল...বিস্তারিত



সর্বশেষ খবর